২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালনের প্রস্তাব

6

a

লাইভ বার্তাঃ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালন করার উদ্যোগ নিতে হবে। দিনটিকে যাতে গণহত্যা দিবস হিসেবে পালন করা হয় সেজন্য সংসদে প্রস্তাব আনতে হবে।

আন্তর্জাতিকভাবে যাতে এই দিবসটি পালিত হয় সেজন্য আমরা বিভিন্ন দেশের কাছে গণহত্যা সংক্রান্ত তথ্য উপাত্ত সরবরাহ করব। ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস, এটা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।



বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে দশম জাতীয় সংসদের ১৪তম অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ পাকিস্তানের জুনায়েদ আহমেদ গ্রন্থ ‘ক্রিয়েশন অব বাংলাদেশ: মিথস এক্সপ্লোডেড’-এর প্রতিবাদ জানান।

ওই বইতে মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী দ্বারা এদেশের গণহত্যাকে মুক্তিবাহিনীর হত্যাকাণ্ড হিসেবে দেখানোর চেষ্টা হয়েছে। বইটির নিন্দা জানিয়ে ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবস ঘোষণার দাবি করেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস ঘোষণা ও পালন প্রসঙ্গে একমত প্রকাশ করেন এবং এ ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়ার কথা জানান।

সরকারের পক্ষ থেকে পাকিস্তানকে আনুষ্ঠানিকভাবে বইটি প্রসঙ্গে প্রতিবাদ জানানো হবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

এরপর স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস ঘোষণার যে প্রস্তাব দিয়েছেন। একই প্রস্তাব একজন সংসদ সদস্যও দিয়েছেন। আগামী অগ্নিঝরা মার্চের যে কোনো দিনে সংসদে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হবে।

ঝ/১৫

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY