টলিউডে পা রাখলেন এই মেয়র কন্যা

10

l2

বিনোদন ডেস্কঃ

বাবা দুঁদে রাজনীতিক। রাজনীতির মঞ্চে পা রাখার রাস্তা তাঁর কাছে খোলা ছিল। কিন্তু কেরিয়ার হিসেবে তিনি বেছে নিয়েছেন বিনোদন দুনিয়াকেই। দেবলীনা কুমার। ভারতের কলকাতা পৌরসভার মেয়র পারিষদ তথা শাসকদলের আঁতুড়ঘর দক্ষিণ কলকাতা জেলা কমিটির সভাপতি দেবাশিস কুমারের মেয়ে দেবলীনা পা রাখলেন টলিউডে।

বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে ‘১৪ই অগস্ট’এর শ্যুটিং। ছবির নায়িকা তিনিই। তাঁর বিপরীতে রয়েছেন নবাগত শন বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এবং নন্দিতা দাস পরিচালিত ‘প্রাক্তন’ ছবিতে মুখ দেখিয়েছেন দেবলীনা। এছাড়া তাঁর অভিনীত ‘চল কুন্তল’ এবং ‘ভুত্তু ভুতুম’ রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়।



পারিবারিক সূত্র ধরে রাজনীতিতে যোগ দেওয়া তৃণমূল কংগ্রেসের ইতিহাসে নতুন ব্যাপার নয়। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের পুত্র সায়নদেব। কিংবা মুকুল রায়ের ছেলে শুভ্রাংশু— সকলেই যোগ দিয়েছেন রাজনীতিতে। রাজনৈতিক পরিবারের মেয়ে হয়েও সিনেমায় এলেন কেন? উত্তরে দেবলীনা বললেন, ‘‘বাবা কখনও কোনও কিছু আমার উপর চাপিয়ে দেননি। ছোটবেলা থেকে নাচ শিখেছি। নিজের নাচের স্কুলও রয়েছে। সেই থেকেই বিনোদন জগতে আসা।

জীবনে যা-ই করি না কেন, পড়াশোনাটা যেন আগে শেষ করি, সেই ব্যাপারে বাবা খুব জোর দিয়েছেন। পড়াশোনার ক্ষতি হবে, এই ভয়ে বাবা আমাকে কখনও টেলিভিশনে কাজ করতে দেননি।’’ কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে কখনও রাজনীতি করেছেন? অভিনেত্রীর কথায়, ‘‘রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় রাজনীতি করতাম। কালচারাল সেক্রেটারিও ছিলাম। এমনকী, ভোটের সময় বাবার হয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারও করেছি।’’ কখনও রাজনীতিতে আসার পরিকল্পনা রয়েছে? ‘‘এই মুহূর্তে নেই। তবে ভবিষ্যতে রাজনীতিতে যোগ দিলেও দিতে পারি,’’ বললেন দেবলীনা।

জ/ ০০২

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY